পাতা

অফিস সম্পর্কিত

 অবস্থান

 

চুনারুঘাট উপজেলা হবিগঞ্জ জেলার দক্ষিণাংশে অবস্থিত। এর উত্তরে হবিগঞ্জ সদর ও বাহুবল উপজেলা, পূর্বে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলা ও ভারত, দক্ষিণে এবং পশ্চিমে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর ও সদর উপজেলা অবস্থিত।

 

ইতিহাস 

 

চুনারুঘাট থানা হিসেবে প্রথম প্রতিষ্ঠা লাভ করে ১৯২২ সালে। মান উন্নীত থানা হয় ১৯৮২ সালে এবং উপজেলা হিসেবে ঘোষণা হয় ১৯৮৩ সালে। অতি প্রাচীন কালে এ এলাকার নাম ছিল তরফ রাজ্য। রাজ্যের সর্বশেষ রাজার নাম ছিল আছক নারায়ণ এবং তাঁর রাজধানী ছিল বর্তমান বাল্লা সীমান্তের নিকটে টেকারঘাট গ্রামে। হযরত শাহজালাল (রঃ) এর নির্দেশে সিপাহ্ সালার সাইয়েদ নাসির উদ্দিন কর্তৃক তরফ রাজ্য বিজয়ের পর এ অঞ্চলে মুসলিম শাসন আরম্ভ হয়। বৃটিশ আমলে তৎকালীন আসাম সরকারের  ১০/০৮/১৯১৪ ইং তারিখের ৪৭ জি স্মারকে সিলেট জেলার হবিগঞ্জ মহকুমাধীন মুছিকান্দি থানার প্রতিষ্ঠা হয়। যা বর্তমানে থানা সদর হতে প্রায় ৬ কিঃমিঃ পূর্ব দক্ষিণে খোয়াই নদীর তীরে অবস্থিত ছিল। কিন্তু মুছিকান্দি যাতায়াতের অসুবিধা হেতু ১৯২২ সালে বর্তমান স্থানে থানা সদর স্থানান্তর হয়।

 

উপজেলার ঐতিহ্য/বিশেষত্ব/সুযোগ-সুবিধা 

 

হযরত শাহজালাল (রঃ) এর অন্যতম সিপাহ্ সালার সাইয়ৈদ নাসির উদ্দিন (রঃ) অনুমান ১৩১৮ ইং সনে তরফ রাজ্য জয় করে এখানে অবস্থান করেন। নরপতি মৌজার মুড়ারবন্দে তাঁর মাজার শরীফ রয়েছে। গাজীপুর ইউনিয়নে আছে শাহ্ গাজী(রঃ) এবং শাহ্ কালু (রঃ) এর মাজার শরীফ। ষোড়শ শতকের স্মৃতি বিজড়িত গোগাউড়া দরিয়া বা দিঘী (পরিমাণ ২২ একর) এবং নরপতি নাজির খাঁ দিঘী চুনারুঘাটের ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবে বিদ্যমান আছে। চুনারুঘাটের মাঝারী ও ছোট পাহাড়ে বিদ্যমান  চা বাগান ও বনজ সম্পদ এদেশের অর্থনীতিতে বিশেষ অবদান রাখছে।

ছবি

banner 2.jpg banner 2.jpg



Share with :

Facebook Twitter